Show Categories

বাচ্চাদের কবিতা ও  ছড়া পড়ানোর মাধ্যমে যেসব গুণ গড়ে তুলবেন

বাচ্চাদের কবিতা

বাচ্চাদের সবচেয়ে অপ্রিয় কাজ কী? পড়ালেখা। আর বাচ্চাদের সবচেয়ে প্রিয় কাজ? খেলাধুলা করা ও মজা করা। প্রিয় কাজের লিস্টে বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়াও কিন্তু বিশেষ জায়গা দখল করে আছে। বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়ার মাধ্যমে ছড়াকাররা একটা সুন্দর কল্পনার জগৎ তৈরি করেন। ছড়ার মাধ্যমে কল্পনার জগৎ যখন তৈরি হওয়ার ফলে তারা ছড়া পড়তে ভালোবাসে। বাচ্চাদের বর্ণমালা পরিচয় করানোয় ছড়ার ব্যবহার এই ভাবনা থেকেই এসেছে। মজার বিষয় হলো বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়ার মাধ্যমে বর্ণমালা চেনানোর সাথে সাথে তাদের অন্যান্য বিকাশও বাড়ে ও সমৃদ্ধ হয়। চলুন আজ আমরা জেনে নেই, বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়া পড়ানোর মাধ্যমে তাদের বিকাশ কীভাবে সমৃদ্ধ হয়।

ভাষাগত উন্নয়ন

বাচ্চাদের ভাষা জ্ঞানকে সমৃদ্ধ করার জন্য কবিতা বা ছড়া অসাধারণ ভূমিকা রাখতে পারে। ছড়া পড়ার মাধ্যমে বাচ্চারা অনেক সহজেই একটা পূর্ণ বাক্য বলতে পারে। ছড়ার লাইনগুলো পড়ার মাধ্যমে তারা নিজের মনে একটা জগৎও তৈরি করে। ছড়াগুলো অনেক মজার হওয়ার কারণে তারা ছড়ার লাইনটি বোঝার চেষ্টা করে। উদাহরণ স্বরুপ যদি “আয় আয় চাঁদ মামা, টিপ দিয়ে যা, চাঁদের কপালে চাঁদ টিপ দিয়ে যা” ছড়াটিকে ধরেন। এই ছড়াটি বাচ্চাকে পড়ানো বা শোনানোর মাধ্যমে একটা মুহূর্তের কল্পনা তার মনে আসবে। চাঁদ মামা তার কাছে আসবে, গল্প করবে। তাছাড়া চাঁদ একটা সৌন্দর্যের প্রতীক, কোন কিছুকে চাঁদের সাথে তুলনা করা মানে সেও সুন্দর-এমন একটা বোধও আপনি তার ভেতর জন্মাতে পারবেন। সে নিজে এই ছড়া নিজে নিজে পড়ার মাধ্যমে সুন্দর উচ্চারণে কথা বলার গুণও আয়ত্ত করতে পারবে।

বাংলাদেশের প্রথম ও একমাত্র সায়েন্স কিট বিজ্ঞানবাক্স, যা আপনার সন্তানকে বিজ্ঞানের প্রতি করে তুলবে অনেক বেশি আগ্রহী। আরো জানতে ক্লিক করুন এখানে

শব্দভান্ডার সমৃদ্ধ হওয়া

“নোটন নোটন পায়রাগুলি ঝোঁটন বেধেছে, ওই পাড়েতে ছেলে মেয়ে নাইতে নেমেছে” এই ছড়াটি আমরা ছোট বেলায় মজা ও আনন্দ নিয়েই পড়েছি। একটু খেয়াল করলেই কিন্তু খেলার ছলেই আপনার সন্তানকে এখান থেকে অনেক শব্দ শিখিয়ে ফেলতে পারবেন। পায়রা মানে কবুতর, নাইতে নামা গোসল করতে নামা! দেখলেন তো, স্রেফ মজা আর খেলতে খেলতেই শেখা হয়ে গেলো দুটো শব্দ। আর আনন্দের সাথে ও খেলার মাধ্যমে যা শিখবে তা মনে থেকে যাবে সবচেয়ে বেশি, শিখবেও সহজে। অথচ আপনি যদি তাকে এমনি শুধু পায়রা শব্দ মুখস্থ করাতে যান, হয়তো পুরোদিন লেগে যাবে আবার কিছুক্ষণ পর ভুলেও যাবে।

আপনার সন্তান বিজ্ঞান পড়তে চায় না? তাহলে বিজ্ঞানকে করে তুলুন মজার। তাকে নিয়ে দিন বিজ্ঞানবাক্স। বিজ্ঞানবাক্স সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

পারিবারিক সম্পর্ক ভালো হওয়া

আপনি আপনার সন্তানের সাথে একসাথে বসে ছড়া বা কবিতা পড়ছেন, তাকে পড়তে বলছেন। পড়তে পড়তেই ছড়া বা কবিতার বিষয় বস্তু নিয়ে আলোচনা করছেন। ইত্যাদি আপনাদের পারিবারিক সম্পর্কে আরো জোরদার করবে। তাছাড়া আপনার সন্তানের সামাজিকতা, নিজের বোধ নিয়ে কথা বলতে পারা, নিজের ভালোলাগা, খারাপ লাগা জানানো ইত্যাদি বিষয়েও বেশ উন্নতি হবে।

বিজ্ঞানবাক্সের মাধ্যমে আপনার সন্তানকে ছোট থেকেই বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহী করে তুলতে পারবেন। বিজ্ঞানবাক্স সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

নৈতিকতার শিক্ষা পাওয়া

বাচ্চাদের জন্য মজার মজার ছড়া ও কবিতার পাশাপাশি অনেক কবিতা লেখা হয় তাদের নৈতিক শিক্ষা, দেশপ্রেম, সামাজিকতা ইত্যাদি নিয়ে। এমন সব ছড়া পড়ানোর মাধ্যমে সহজেই আপনি আপনার সন্তানের মাঝে কিছু গুণের জন্ম দিতে পারবেন। সুফিয়া কামালের প্রার্থনা কবিতাটি অথবা কুসুমকুমারি দাসের আদর্শ ছেলে কবিতাটিতো আপনি পড়েছেন। এই কবিতাগুলো শৈশবে আমার মতো আপনার জীবনেও অনেক প্রভাব রেখেছে। সুন্দর করে ভাবতে সাহায্য করেছে। একইভাবে কবিতা ও ছড়া প্রভাব রাখবে আপনার সন্তানের মানসিক বিকাশেও।

কল্পনাশক্তি বাড়ানো

ছড়া বা কবিতা বাচ্চাদের মাঝে কল্পনাশক্তি উন্নয়নে সাহায্য করে। কারণ বাচ্চাদের জন্য ছড়া অনেক মজার করে লেখা হয় ও একই সাথে নিজের কল্পনাশক্তিকে কাজে লাগানোর জন্য যথেষ্ট উপকরণ থাকে। ছড়া পড়ার মাধ্যমে আপনা আপনি বাচ্চাদের মাঝে সেই ছড়ার বিষয়বস্তু নিয়ে একটা কল্পনার জগৎ তৈরি হয়ে যায়। হাট্টিমাটিম টিম, তারা মাঠে পাড়ে ডিম, তাদের খাড়া দুটো শিং, তারা হাট্টিমাটিম টিম; মনে পড়ে? বাস্তবে কোথাও পাবেন শিং ওয়ালা পাখি? কিন্তু এই ছড়াটি পড়ার সময় নিজের অজান্তেই আমাদের মাথায় হাট্টিমাটিম টিম পাখি নিয়ে একটা কল্পনার জগত তৈরি হয়।

খেলনা হিসেবে বাচ্চাকে একই সাথে দারুন ও শিক্ষণীয় কিছু দিতে চাইলে বিজ্ঞানবাক্সই সেরা।

বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়ার বই কোথায় পাবেন?

বাচ্চাদের জন্য কবিতা বা ছড়া বাংলা সাহিত্যের বেশিরভাগ কবিরাই লিখেছেন। রবীন্দ্রনাথ থেকে নজরুল, সুকুমার রায় থেকে সুফিয়া কামাল কিংবা বর্তমান সময়ের লুৎফর রহমান রিটন, নির্মলেন্দু গুণ থেকে শুরু করে ব্রত রয় সবাই মোটামুটি বাচ্চাদের জন্য ছড়ার বই লিখেছেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শিশু, শিশু ভোলানাথ, খাপছাড়া, ছড়া ও ছবি, সহজ পাঠ শিশুদের জন্য অন্যতম ছড়ার বই।

কাজী নজরুল ইসলামও বাচ্চাদের জন্য ছড়ার বই লিখেছেন। নজরুল ইনস্টিটিউট থেকে প্রকাশিত নজরুলের শিশুসাহিত্য বইটিতে কাজী নজরুল ইসলামের লেখা শিশুদের জন্য কবিতা, ছড়া ও ছোট গল্পের দারুন কিছু সংকলন পাবেন।

তবে শিশুদের জন্য সবচেয়ে বেশি ছড়া লিখেছেন কে? এমন প্রশ্নে সুকুমার রায়ের নামটা সম্ভবত সবার আগে আসবে। শিশুদের জন্য লেখা অনেক বই আছে সুকুমার রায়ের। তবে তার ছড়া সমগ্র বইটিতে আপনি অনেক ছড়া পাবেন সুকুমার রায়ের। সুকুমার রায়ের ছড়া নিয়ে দারুন একটি ওয়েবসাইটও আছে। সেখানে ছড়াগুলো পাওয়ার পাশাপাশি ছড়াগুলো আবৃত্তিও পাবেন। (ওয়েবসাইটের লিংক)

তাছাড়া যতীন্দ্রনাথ বাগচী, মদনমোহন তর্কালঙ্কার, গোলাম মোস্তফা, সুফিয়া কামাল সহ অনেক ছড়াকার বাচ্চাদের কবিতা বা ছড়া নিয়ে কাজ করেছেন।

বর্তমান সময়ের ছড়াকারদের মধ্যে লুৎফর রহমান রিটন, হাসনাত আমজাদ,কামাল হোসেইন, শফিক ইমতিয়াজ, মুকুল শাহরিয়ার, ব্রত রয় ও রোমেল রায়হানের প্রমুখরা বাচ্চাদের জন্য বেশ মজার মজার ছড়া লিখেন। রকমারি ডট কম থেকে এইসব ছড়াকার ছাড়াও আরো অনেক ছড়াকারদের বই পাবেন। কিংবা কিনতে পারেন বাচ্চাদের কোন বইয়ের দোকান থেকেও। প্রতিবছর বই মেলা ঘিরে বাচ্চাদের উপযোগী বইতো আছেই। আর প্রায় সব দৈনিক পত্রিকার সাহিত্য পাতায় বাচ্চাদের জন্য ছড়া ছাপা হয়। ইউটিউবে বাচ্চাদের মজার মজার অনেক ছড়া পাবেন, কিংবা গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপল স্টোর থেকে নামিয়ে নিতে পারেন পছন্দের কোন ছড়ার অ্যাপস।

 

বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র সায়েন্স কিট অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স আপনার সন্তানের অবসর সময় সুন্দর করবে, এবং তার মেধা বিকাশে সাহায্য করবে। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

#mc_embed_signup{background:#fff; clear:left; font:14px Helvetica,Arial,sans-serif; }
/* Add your own Mailchimp form style overrides in your site stylesheet or in this style block.
We recommend moving this block and the preceding CSS link to the HEAD of your HTML file. */

নিয়মিত এমন কন্টেন্ট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

* indicates required
0-3
4-7
8-10
11-12
13-15
15+

(function($) {window.fnames = new Array(); window.ftypes = new Array();fnames[2]=’MMERGE2′;ftypes[2]=’dropdown’;fnames[1]=’FNAME’;ftypes[1]=’text’;fnames[0]=’EMAIL’;ftypes[0]=’email’;fnames[4]=’PHONE’;ftypes[4]=’phone’;fnames[5]=’MMERGE5′;ftypes[5]=’text’;}(jQuery));var $mcj = jQuery.noConflict(true);

 1,317 total views,  6 views today

What People Are Saying

Facebook Comment