শীতকাল মানেতো হিম ঠান্ডা! হাত-পা ঠান্ডা, বাতাস ঠান্ডা, গরম খাবার রেখে দিলে কিছুক্ষণ পরেই আবার ঠান্ডা, টেবিলের উপর রাখা স্টিলের স্কেলটাতো ভয়াবহ ঠান্ডা! সবচেয়ে বেশি ঠান্ডা কী বলো তো?
হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছো, সবচেয়ে বেশি ঠান্ডা হলো পানি। এটার পেছনে অবশ্য একটা মজার বিজ্ঞান রয়েছে। এই ঠান্ডা পানির জন্যতো অনেককে গোসল করাতে রীতিমত যুদ্ধ করতে হয়। তোমরা অবশ্য করো, কারণ তোমরা হচ্ছো এই যুগের সুপারম্যান।

কিন্তু একটা জিনিস কি খেয়াল করেছো? শীতের সময় এত এত ঠান্ডা পানির ভীড়ে টিউবওয়েলের পানি কিছুটা গরম লাগে!
তোমাদের মনে কি প্রশ্ন জাগে, এত এত ঠান্ডার মাঝে টিউবওয়েলের পানি কেন একটু গরম হবে?
এটার পেছনেও কিন্তু একটা মজার বিজ্ঞান আছে! আমরা আজ সেই মজার বিজ্ঞানটা নিয়ে জানবো, সাথে পরীক্ষা করে দেখবোও। আগে মজার বিজ্ঞানের ব্যাখ্যাটা জেনে নিই।

টিউবওয়েলের পানি আসে ভূগর্ব থেকে, মানে মাটির গভীর থেকে। সেই মাটির গভীরের একটা নির্দিষ্ট তাপমাত্রা থাকে। এলাকা ভিত্তিক সেটা ১৫-২৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস হয়ে থাকে। আচ্ছা, তাহলে কি শীতকালে মাটির নিচের পানি ওপরে আসতে আসতে পানির তাপমাত্রা বেড়ে যায়? না, তা বাড়ে না! তাহলে গরম লাগে কেন? কারণ শীতকালে আমাদের বায়ুমন্ডলের তাপমাত্রা মাটির নিচের পানির তাপমাত্রা থেকে কম থাকে। তখন আমাদের বায়ুমন্ডলের তাপমাত্রা থাকে ১০-১৮ ডিগ্রী সেলসিয়াসের মতো!

বায়ুমন্ডলে আমরা কম তাপমাত্রায় অভ্যস্ত হয়ে যাই। মানে আমাদের শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা কমে যায়। ঠিক তখনই যখন আমরা বায়ুমন্ডলের পানির তাপমাত্রার চেয়ে একটু বেশি তাপমাত্রার পানি (মাটির নিচের পানি) ছুঁই, তখন তা আমাদের কাছে গরম লাগে।

বুঝতে পারছো না? চলো তাহলে একটা পরীক্ষা করা যাক।

পরীক্ষার জন্য তিনটা পাত্র নাও। এরপর তিনটা পাত্রের বাম পাশের পাত্রটাতে গরম পানি, ডান পাশের পাত্রটাতে ফ্রিজের পানি ও মাঝের পাত্রে স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানি রাখো।
এবার ডান হাত ফ্রিজের পানিতে ও বাম হাত গরম পানিতে ১ মিনিট চুবিয়ে রাখো। ঠিক ১ মিনিট পরে দুই হাত একসাথে মাঝের পাত্রে রাখা স্বাভাবিক পানিতে চুবাও! কেমন অনুভব হচ্ছে?

মাঝের পাত্রের পানির তাপমাত্রা তো এক, আর তুমি দুইহাত সেই একই তাপমাত্রার পানিতে রেখেছো! তার মানে অনুভুতিও একই হওয়ার কথা। কিন্তু তা না হয়ে, তোমার ডান হাতে গরম লাগছে আর বাম হাত লাগছে ঠান্ডা! অদ্ভূত না? আসলে ঘটনাটি মোটেও আজব না। এর পেছনে একটা সুক্ষ্ণ বৈজ্ঞানিক কারণ আছে। কারণ ডান হাত ফ্রিজের পানিতে থাকায় তার তাপমাত্রা মাঝের পাত্রের স্বাভাবিক পানির তাপমাত্রার চেয়ে কম ছিলো। আর যখনই কম তাপমাত্রার পানি থেকে হাত এনে বেশি তাপমাত্রায় রাখলে তখনই বেশি তাপমাত্রার তারতম্যের কারণে তোমার ডান হাত গরম অনুভব হচ্ছে। আবার একই কারণে বাম হাত একটু ঠান্ডা অনুভব হচ্ছে। কারণ বাম হাত একটু গরম পানিতে থাকায় তার তাপমাত্রা বেশি ছিলো আর স্বাভাবিক পানির তাপমাত্রা হালকা গরম পানির তুলনায় কম। সেজন্য বা্ম হাতে একটু ঠান্ডা লেগেছে!

শীতের সময় কেন টিউবওয়েলের পানি কিছুটা গরম লাগে তার রহস্যতো মিটলো।

এবার তাহলে তোমাদের একটা পরীক্ষা দেই। বৃষ্টির সময় বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে পুকুরের পানিতে সাঁতার কেটেছ বা গোসল করেছ কখনো? কী অনুভূতি হয়েছিলো? বৃষ্টির সময় বৃষ্টির পানির চেয়ে পুকুরের পানি কিছুটা গরম মনে হয়েছে না?
তাহলে বৃষ্টির সময় বৃষ্টির পানির চেয়ে পুকুরের পানি গরম কেন লাগে তার পেছনের মজার বিজ্ঞান লিখে আমাদের পাঠিয়ে দাও।

আরো পড়ো-চুম্বকের যত চমক

বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র সায়েন্স কিট অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স আপনার সন্তানের অবসর সময় সুন্দর করবে, এবং তার মেধা বিকাশে সাহায্য করবে। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

623 total views, 1 views today

What People Are Saying

Facebook Comment