বাচ্চারা জন্মগতভাবে বিজ্ঞানীর ন্যায় আচরণ করে। অজানা বিষয়কে তারা জানতে চায়, একের পর এক প্রশ্ন করতে থাকে, আশেপাশের পরিবেশ সম্পর্কে তারা বেশ কৌতুহলী হয়। যখন তারা একটু বড় হয় তখন তারা ধীরে ধীরে বিজ্ঞানের প্রতি তাদের কৌতূহল হারাতে থাকে। কিন্তু বাচ্চাদের জানাতে হবে সবকিছুর মধ্যেই বিজ্ঞান আছে। খেলার মাধ্যমে, বেড়াতে যেয়ে, মজা করে তারা শিখতে পারে রহস্যময় বিজ্ঞানকে। চলুন দেখে নেওয়া যাক, বাচ্চাদের বিজ্ঞানে আগ্রহী করার ৮টি সহজ উপায়।

১। খেলনা হিসাবে মাইক্রোস্কোপ/আতশী কাঁচ দিনঃ বাচ্চাদের অভ্যাস বিজ্ঞানীদের মত করে যে কোন কিছু গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা। তাদের আগ্রহ ধরে রাখতে খেলনা হিসাবে মাইক্রোস্কোপ/আতসী কাঁচ দিতে পারেন। এই মাইক্রোস্কোপ দিয়েই তারা ছোট বড় বিভিন্ন কীটপতঙ্গ থেকে শুরু করে যে কোন কিছু আগের থেকে আরো সূক্ষ্মভাবে পর্যবেক্ষণ করবে, তৈরি হবে নতুন নতুন প্রশ্ন, জানতে পারবে অজানা সব বিষয়।

২। বিজ্ঞান মেলাতে নিয়ে যানঃ নতুন নতুন বিজ্ঞানভিত্তিক বিষয় সম্পর্কে জানার জন্য বিজ্ঞান মেলা বা শিবির হল বাচ্চাদের জন্য উপযুক্ত স্থান। এখানে তারা প্রশিক্ষক ও অন্য বাচ্চাদের সাথে যোগাযোগ করার সুযোগ পায়। এর মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন বিষয়ে জানার আগ্রহ আরো বাড়ে।

৩। ঘুরে আসুন জাদুঘর থেকেঃ জাদুঘর হল এমন একটি স্থান যেখানে ইতিহাস সংরক্ষিত থাকে। মাঝে মাঝে বাচ্চাদের নিয়ে বিজ্ঞান জাদুঘর থেকে ঘুরে আসুন, তাদেরকে সুযোগ করে দিন বিজ্ঞানের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে। তারা জানতে শুরু করবে মানব সভ্যতার শুরু থেকে এখন অবধি বিজ্ঞানের অবদান সম্পর্কে।আপনার সন্তানকে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন বাংলাদেশ বিজ্ঞান জাদুঘর, বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটারে।

সিনেমা দেখুন বাচ্চাদের নিয়েঃ বর্তমান সময়ে বিজ্ঞানের নতুন নতুন আবিষ্কার সম্পর্কে জানতে বিজ্ঞান বিষয়ক সিনেমাগুলো বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। যদিও অধিকাংশ বিজ্ঞান বিষয়ক মুভিতে তেমন কিছু নাই, তবে কিছু কিছু ভাল সিনেমা আছে যা থেকে বাচ্চারা বিজ্ঞান সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবে। ভাল কিছু সায়েন্স ফিকশন সিনেমার নাম বললে  ২০০১ : আ স্পেস অডিসি, ব্লেড রানার, এলিয়েন, অ্যাপোলো ১৩, মারটেইন, দ্যা ম্যান হু ন্যু ইনফিনিটি ইত্যাদি নাম গুলো উঠে আসে। বিনোদনের সাথে হোক বিজ্ঞানশিক্ষা।

৫। বেড়াতে নিয়ে যানঃ
আপনার বেড়ে ওঠা সন্তানকে নিয়ে ঘুরে আসুন নতুন কোন পরিবেশ থেকে, যা আপনার সন্তানের শারীরিক ও মানসিক বিকাশে সাহায্য করবে। এসময় আপনি তাদের সাথে বিজ্ঞান, প্রকৃতি, বন্যজীবন ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করতে পারেন। তাদেরকে হাতে কলমে শেখাতে পারেন এই সবগুলো বিষয় একে অপরের সাথে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত।

৬। খেলতে দিন বাচ্চাদেরঃ বর্তমান সময়ে বাচ্চারা ভিডিও গেম, অ্যাপস, ডিজিটাল বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে খেলতে খেলতে বড় হচ্ছে। ফলে বাচ্চাদের শিক্ষণীয় উপকরণের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে বাবা- মাকে বিভ্রান্তিতে পড়তে হচ্ছে। তবে আশার কথা হচ্ছে এমন অনেক উপকরণ আছে যার মাধ্যমে বাচ্চারা একসাথে খেলতে ও বিজ্ঞান শিক্ষতে পারবে।

৭। তাদেরকে বিজ্ঞানবাক্স দিনঃ
গতানুগতিক শিক্ষা ব্যবস্থায় বাচ্চারা বিরক্ত। তাদেরকে এমন কিছু দিতে হবে যেন তারা অনন্দের সাথে শিক্ষাগ্রহণ করে। “অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স” হতে পারে সেই আনন্দদায়ক শিক্ষা উপকরণ। এটি শিশুর শিক্ষাগত ও মানসিক উভয় বিকাশে সাহায্য করে এবং বিজ্ঞানের পড়াকে সহজ করে।

৮। বাচ্চাদের সাথে আপনিও শিখুনঃ বাচ্চাদের বিজ্ঞানে আগ্রহী করে গড়ে তোলার অন্যতম উপায় হল তাদের সাথে শিখতে শুরু করা। যখন আপনি তাদের সাথে শিক্ষায় অংশ নিবেন তখন তারা আপনাকে আরো বেশি পরিমাণে প্রশ্ন করবে বিভিন্ন বিষয়ে কাকে বলে, কেন হয়, এসব ব্যখ্যা নিয়ে আপনার সাথে আলোচনা করবে। যে কোন বিষয়ে বাচ্চাদের কৌতুহল মেটাতে এটা খুবই কার্যকরী।

আপনার সন্তান শারীরিক ও মানসিক সুস্থতায় বেড়ে উঠুক বিজ্ঞানের সাথে।

264 total views, 3 views today

What People Are Saying

Facebook Comment