INFJ প্রোফাইল-যে আপন মনে বানানো সুন্দর বাগানে বিচরণ করে

 

পৃথিবীতে সাতশ কোটি মানুষ। সব মানুষের কিন্তু রয়েছে আলাদা আলাদা ধরণ। জানার, শেখার, সিদ্ধান্ত নেয়ার, জীবনবোধের আলাদা আলাদা ধরণ ও শক্তির জায়গা আছে সবার। আছে আলাদা আলাদা পার্সোনালিটি টাইপ ।কেউ সবসময় আড্ডা দিতে পছন্দ করে, কেউ নিজের মাঝে থাকতে। কেউ খেলতে পছন্দ করে তো কেউ বই পড়তে, কেউবা পছন্দ করে লিখতে। কেউ হুট করে সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় তো কেউ সিদ্ধান্ত নেয় ভেবে চিন্তে। এবং এই আলাদা ধরণটা তারা জন্মগতভাবে অনেকটা  প্রকৃতিগতভাবে পেয়ে থাকে।  এই আলাদা আলাদা মানুষের আলাদা আলাদা শক্তির জায়গাকে কাজে লাগানোর জন্য আমেরিকান শিক্ষাবিদ ক্যাথেরিন কুকস ব্রিকস ও তার মেয়ে ইসাবেলা ব্রিকস মায়ার পৃথিবীর সব মানুষকে ১৬ টা আলাদা আলাদা ক্যাটাগরিতে ফেললেন একটা পরীক্ষার মাধ্যমে। আর ক্যাটাগরি অনুযায়ী ঠিক করলেন কোন ধরণের মানুষের ভেতর থেকে কীভাবে তার সেরাটা বের করে আনা যাবে! আর তারা দুজন একই কাজটা করলেন বাচ্চাদের জন্য। পরীক্ষার মাধ্যমে বাচ্চাদের পার্সোনালিটি প্রোফাইল বের করে সে প্রোফাইল অনুযায়ী তারা দুজন মিলে বাচ্চাদের মাঝ থেকে সেরাটা বের করে আনার জন্য অনেকগুলো পরামর্শ বা কৌশল বের করেছেন। বের করেছেন, কোন ধরণের বাচ্চার সাথে কীভাবে আচরণ করতে হবে তাও। এক কথায় বলতে গেলে, শেখার বা সফল করার একটা ন্যাচারাল উপায় তিনি বাতলে দিয়েছেন। লিখেছেন একটি বইও। এই মহান শিক্ষাবিদের সেই বই অবলম্বনে আমরা বিজ্ঞানবাক্স ব্লগের পাঠকদের জন্য একটা সিরিজ লেখা শুরু করেছি। আগের ব্লগের মাধ্যমে আপনি আপনার সন্তানের পার্সোনালিটি টাইপ বের করতে পারবেন। আর আমরা ধাপে ধাপে সব পার্সোনালিটিরি বাচ্চাদের জন্য আপনাকে পরামর্শ দিবো ও জানাবো আপনার বাচ্চার সেরাটা বের করে আনার জন্য আপনার ভূমিকা কেমন হতে হবে। আপনার বাচ্চার পার্সোনালিটি প্রোফাইল জানা না থাকলে জেনে নিন আমাদের এই টেবিলটা দেখে। আর আজকে জেনে নিন INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের জন্য পরামর্শ।

INFJ প্রোফাইল

নিজের একটা কল্পনার বাগান, সেখানে নিজের ফ্যান্টাসি, সেখানে নিজের বিচরণ, ভালো-মন্দ বোধের গভীরতা, অদম্য কৌতুহল এই সব মিলিয়েই একজন INFJ। বিশাল এক কল্পনাশক্তির অধিকারী INFJ প্রোফাইলের মানুষেরা। পৃথিবীর সবকিছু নিজের একটা সুন্দর ও অনিন্দ্য দৃষ্টি দিয়ে দেখার এক বিশেষ ক্ষমতা আছে তাদের। ভালো-খারাপ সবকিছু বিচার করার ক্ষেত্রে এরা নিজের দৃষ্টিভঙ্গিকে সবচেয়ে বিশ্বাস করে। এবং সেই সিদ্ধান্তকেই সবচেয়ে বেশি সম্মান করে, মূল্যায়ন করে। INFJ দের ডিল করার সময় অবশ্যই তাদের ফ্যান্টাসি, তাদের দৃষ্টিভঙ্গিকে উৎসাহ দিতে হবে। তার চিন্তাকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করার জন্য তার দৃষ্টিকোণ থেকে তার সাথে কথা বলতে হবে। তার সামনে অনেক বেশি আইডিয়া ও সুযোগ তুলে ধরতে হবে।

প্রি-স্কুলার INFJ (বয়স ০-৪ বছর)

জন্মের পর পরই রায়ানের সিরিয়াস চেহারা দেখে নার্স মজা করেই বললো-রায়ান পৃথিবীতে এসেই সিরিয়াস হয়ে গেছে, অন্যদের মতো বেশি কাঁদেও নি। খুব বেশি উদ্বিগ্ন ও চিন্তিতও দেখা যায় নি। আপনাদের সন্তান অনেক ভাবুক ও চিন্তাশীল হবে। তারপর থেকেই রায়ানকে সবসময় কিছু নিয়ে ভাবতে দেখা যায়। দেখলে মনে হয় কিছু একটার রহস্য উদঘাটনের জন্য ভাবছে রায়ান।

রায়ানের মাঝেই আপনি খুঁজে পাবেন একজন পরিপূর্ণ INFJ-কে। তারা সবসময় নিজের মাঝে থাকবে, নিজের ভাবনার মাঝে থাকবে, তাদের ভেতর প্রচুর কৌতূহল থাকবে। তারা অনেক বেশি আদুরে, ফুটফুটে। বাবা-মা, পরিবার ও কাছের কারো সামনে অনেক বেশি চঞ্চল থাকবে তারা। কিন্তু বাইরের পৃথিবীতে তারা খুব একটা আগ্রহী থাকবে না, মিশবে না। বাবা-মায়ের সাথে তাদের একটা গভীর ভালোবাসার বন্ধন থাকবে, সবসময় বাবা-মায়ের সাথে থাকতে আনন্দ অনুভব করবে। তারা বাবা-মার থেকে দূরে থাকতে খুব একটা পছন্দ করবে না। অনেক মানুষের মাঝেও বাবা-মাকে জড়িয়ে থাকাটা সে নিরাপদ বোধ করবে। কোন আলোচনা বা আড্ডার মধ্যমণি হতে তারা খুব একটা পছন্দ করে না। একা একা খেলতে দেখা যাবে। বন্ধুদের সাথে খেলাধুলা করার চেয়ে বাবা-মায়ের সাথে বা পরিবারের অন্যদের সাথে আড্ডা দিতে পছন্দ করবে বেশি।

এরা এতটাই কৌতূহলী থাকবে যে, তাদের মুখে সবসময় “কেন” লেগে থাকবে। প্রয়োজনীয় অপ্রয়োজনীয় সবকিছু জানার একটা বিশেষ আগ্রহ থাকবে তাদের মাঝে। আপনাকে অতিষ্ট করে ফেলার মতো প্রশ্ন করবে তারা। নতুন কোন শব্দ শুনলেই তা সম্পর্কে গভীরভাবে জানতে চাইবে। INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা অনেক দ্রুত পড়তে পারার যোগ্যতা অর্জন করবে। কেউ কেউ ২-৩ বছর বয়সের মধ্যে পড়তে পারবে। মজার বিষয় হচ্ছে, পড়তে শেখার কিছু পর থেকে তারা বই পড়ার প্রেমে পড়ে যাবে। বেশিরভাগ INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা অনেক লম্বা সময় ধরে নিজের পছন্দের বই পড়তে ভালোবাসবে। তারা নতুন নতুন শব্দ শিখতে ও জানতেও পছন্দ করবে। ছোট থেকেই তাদের অনুভূতি শক্তি প্রখর হয়। তারা অনেক ক্ষেত্রে কথা না বলেও বাবা-মার ইশারা বুঝে নিবে। INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের প্রশ্নে বিরক্ত হওয়া যাবে না। তাদের প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করতে হবে ও তাদেরকে প্রশ্ন করার পূর্ণ স্বাধীনতা এবং প্রশ্ন করার জন্য উৎসাহ দিতে হবে।

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের এমনিতে কিছুটা চুপচাপ ও আলাদা মনে হতে পারে। কারণ তারা অপরিচিত স্বল্প পরিচিত কারোর সাথে খুব একটা মিশতে চাইবে না। কিন্তু তারা যদি একবার কারো সাথে ভালোভাবে মিশতে পারে বা কাউকে ভালোভাবে চিনে নিতে পারে তাহলে তারা তাদের দারুন সব আইডিয়া, চিন্তাধারা, স্বপ্নের কথা খুব নিঃসংকোচে ও আগ্রহ নিয়ে প্রকাশ করবে। সবকিছুকে কিছুটা ভিন্ন ও কল্পনার দৃষ্টিতে দেখার একটা অসাধারণ গুণ আছে তাদের।

সম্পর্কের প্রতি কিছুটা দুর্বলতা আছে তাদের। সব ধরণের সম্পর্ককে তারা অনেক মূল্য দেয়। তারা তাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে চিন্তিত থাকে। বিচ্ছেদ তাদের জন্য কিছুটা কষ্টের। ছোট বয়সে তারা খুব হালকা কিছুতেও আক্রান্ত হয়, সহজেই কাঁদে, অভিমান করে আবার সহজেই নিজের ভুল বুঝতে পারে। তারা তাদের ভালো লাগা, খারাপ লাগা, ভালোবাসা, হতাশা, আবেগ, অনুভূতি সবকিছুই বাবা-মায়ের সাথে সংকোচহীনভাবে প্রকাশ করতে পছন্দ করে। INFJ প্রোফাইলের একটা মজার বিষয় হচ্ছে, তারা প্রতিযোগিতা পছন্দ করে না। তাদেরকে যদি কোন প্রতিযোগিতায় ফেলে দেয়া হয় তা হবে তাদের জন্য দুঃস্বপ্নের মতো। তারা কিছুটা গোছালো হয়। রুটিন ও পরিকল্পনামাফিক কাজ করতে পছন্দ করে। হুটহাট পরিকল্পনা পরিবর্তনে এরা অভ্যস্ত না। এমন হলে কিছুটা আপসেট হয়ে যায়।

স্কুল গোয়িং INFJ (বয়স-৫-১০ বছর) 

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা যদিও কিছুটা নিজের মাঝে থাকতে পছন্দ করে কিন্তু স্কুল তাদের জন্য শেখার একটা ভালো জায়গা। স্কুলে যদি তার একজন ভালো বন্ধু থাকে ও পড়ালেখাকে নিজের ভালো লাগার জায়গায় নিতে পারে তাহলে সে স্কুলে বেশ ভালো করতে পারবে। সাধারণত তারা পড়ালেখায় বেশ আগ্রহী হয়। বিশেষ করে বিভিন্ন মিথ, রূপকথা ও ক্রিয়েটিভ পড়ালেখার প্রতি তাদের একটা বিশেষ আগ্রহ থাকে। টিপিক্যাল পড়ালেখা যেমন-মুখস্থ করা, প্রতিযোগিতা করা এইসবের সাথে তারা একেবারেই নিজেকে খাপ খাওয়াতে পারে না। পড়ালেখাকে যতটা গল্পের ছলে তাদের সামনে উপস্থিত করা যাবে তারা ততটাই ভালো করবে। ক্রিয়েটিভ লেখালেখির প্রতি তাদের আগ্রহ থাকে অনেক এবং তারা এই কাজটা ভালো করতে পারে। কিছু কিছু INFJ মিউজিক, আর্ট, আলাদা দেশ বা জাতীর কালচার ইত্যাদি বিষয়ে আগ্রহী থাকে। জন্ম, মৃত্যুর মতো সিরিয়াস বিষয় নিয়ে এরা বিশদ আলোচনা করতে পছন্দ করে। বিষয়টা হলো এরা সবসময় বড় ছবিটাই দেখে। কোন কিছুর গভীরে ঢুকতে পারে।তারা অনেক বেশি তথ্যসমৃদ্ধও হয়। তাদের সাথে আপনি যদি সিরিয়াস কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে বসেন তাহলে তাদের পরিপক্বতা দেখে আপনি কিছুটা অবাকও হতে পারেন।

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের বন্ধু সংখ্যা সীমিত থাকে। তারা একই সাথে অনেকগুলো বন্ধুর মাঝে থাকতে বা অনেকগুলো বন্ধু মেন্টেইন করতে স্বাচ্ছন্দ্যোবোধ করে না। কিন্তু যে কয়জন বন্ধুই তার থাকুক সে সেইসব সম্পর্কের ব্যাপারে অনেক বেশি যত্নশীল ও সিরিয়াস থাকে। অনেক বেশি সংঘবদ্ধ থাকে। তাদের জাজমেন্ট ক্ষমতা কিছুটা বেশি থাকার কারণে তারা তার বা তার বন্ধুর কোন ভালো-মন্দ কাজের জন্য খুশি বা কষ্ট পায়। মজার বিষয় হচ্ছে ধীরে ধীরে তাদের বিচার বিশ্লেষণ ক্ষমতা বাড়ে ও নিজেকে অনেকক্ষেত্রে স্বাভাবিক করে নিতে পারে।

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা নিজেদের কোন সিদ্ধান্তকে বিশ্লেষণের জন্য বেশিক্ষণ খোলা রাখে না। একবার সিদ্ধান্ত নিলে সেটাতেই অটল থাকার চেষ্টা করে। আর যদি তার সিদ্ধান্তে কোন কাজ সে শুরু করে দেয় তাহলে তাকে সেখান থেকে বের করে আনা বেশ কষ্টসাধ্য। সে সিদ্ধান্ত পরিপূর্ণভাবে নিয়ে নেয়ার পর যদি তার সিদ্ধান্তের চেয়ে ভালো কোন অপশন তার সামনে আসে সেক্ষেত্রেও সে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে চায় না। সেজন্য তাদের কোন সিদ্ধান্তকে পরিবর্তন করতে একটু শুরুর দিকেই যথেষ্ট যুক্তি সহকারে তাকে বেটার অপশনটি বুঝিয়ে বলতে হবে।

আগেই বলা হয়েছে তারা নিজের ভেতর থাকতে চেষ্টা করে। গ্রুপ এক্টিভিটিতে খুব একটা দেখা যায় না তাদের। এজন্য INFJ এর বাবা-মায়েরা চিন্তায় থাকেন কিছুটা! মজার বিষয় হচ্ছে, তারা আসলে গ্রুপ এক্টিভিটি অপছন্দ করে বিষয়টি এমন নয়। তারা অপরিচিত কারোর সাথে আড্ডা দিতে অপছন্দ করে। কোন গ্রুপে যদি তার আগে থেকে ভালো পরিচিত কেউ থাকে তাহলে সে সেখানে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে। তবে তারা কাছের কোন বন্ধু বা পরিবারের কারো সাথে আলোচনা করতে, আড্ডা দিতে, নতুন কিছু নিয়ে কথা বলতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। কোন ধরণের ব্যক্তিগত আলোচনা, ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত এমন সবকিছু সে তার বিশ্বস্ত ও কাছের কারোর সাথে যথেষ্ট প্রাইভেসির সাথে আলোচনা করতে পছন্দ করে। সে বিশ্বস্ত মানুষটা তার পরিবারের কেউ হতে পারে কিংবা তার খুব কাছের কোন বন্ধু হতে পারে।

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের কোয়ালিটি সম্পন্ন আইডিয়া ও তার ভেতর থেকে সেরাটা বের করে আনার জন্য তাকে প্রাইভেসি দিতে হবে। সে একা একা কাজ করতে পছন্দ করে। মূলত একা একা কাজ করলেই তার সৃজনশীল আইডিয়াগুলো পূর্ণতা পায়। তারা সাধারণত কোন কাজ শুরু করলে তা শেষ করা ছাড়া কাউকে দেখায় না। তার কাজের মাঝে কেউ তার কাজ নিয়ে অনেক বেশি আগ্রহ দেখালে সে তা ভালোভাবে নিতে পারে না। তার মনোযোগ নষ্ট হয় ও সে নিরুৎসাহিত হয়ে পড়ে। কখনো কখনো দেখা যাবে সে কাজটি অসম্পূর্ণই রেখে দিয়েছে। সেজন্য তার কোন কাজ (সেটা সৃজনশীল হতে পারে বা যে কোন আইডিয়া হতে পারে, হোমওয়ার্ক হতে পারে) শেষ হওয়ার আগে সেটার প্রতি আগ্রহ না দেখানো বা দেখতে না চাওয়াই উত্তম।

টিনএজার INFJ ( বয়স-১১-১৬ বছর)

টিনএজ সময়টা প্রায় সবার জন্যই চ্যালেঞ্জিং। কারণ এই সময়ে জীবনের গতিপথে অনেক পরিবর্তন আসে। নিজের পৃথিবী ছেড়ে তাকে আরো বেশি করে বাইরের পৃথিবীর সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে হয়। INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা যেহেতু ছোট থেকেই তাদের নিজের পৃথিবীতে থাকতে ভালোবাসে, বাইরের পৃথিবীর সাথে জোরালো ভাবে মেশায় অনভ্যস্ত থাকে সেক্ষেত্রে এই সময়ে তারা বেশ কনফিউজিং ও কঠিন একটা সময় পার করে। এই সময়ে তাদের কিছুটা সংগ্রাম করতে হয়।

কিছু কিছু INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা তাদের এই সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উঠতে পারে। তারা যেহেতু প্রকৃতিগতভাবে কিছুটা কল্পনাপ্রবণ হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে কেউ কেউ থিয়েটার, বিভিন্ন আর্ট শো তে যুক্ত হয় এবং একটা সময় তারা এ কাজকে অনেক বেশি উপভোগ করে। কেউ কেউ নিজের সৃজনশীলতার ছাপ রেখে যায় কিন্তু তাও স্টেজের পেছনে। অনেকটা পলিসি মেকারের মতো। কিন্তু বেশিরভাগই নিজেদের অন্তর্মুখী স্বভাবের কারনে অপ্রত্যাশিতভাবে কিংবা বিনা প্রস্তুতিতে নিজেকে কোন কিছু কেন্দ্রে আবিষ্কার করা উপভোগ করে না। যার কারণে অনেকটা হীনমন্মতায় ভোগে ও নিরুৎসাহিত হয়ে পড়ে।

INFJ প্রোফাইল এর বাচ্চারা নিজেদের ফিউচার ও ক্যারিয়ার নিয়ে বেশ চিন্তায় থাকে। সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে কিছুটা দ্বিধায় ভোগে। তারা সাধারণত প্রচলিত চাকরি ও ব্যবসার প্রতি তেমন একটা আগ্রহী থাকে না। তারা চেষ্টা করে এমন কিছু করতে যেখানে সামাজিক মূল্যের পাশাপাশি মুল্যবোধ থাকে, ক্রিয়েটিভিটি থাকে। অনেকেই মঞ্চের পেছনে থেকে সমাজকে পরিবর্তন করতে বেশি আগ্রহী হয়।

এই সময়ে এই বাচ্চাদেরকে অনেক বেশি সময় দিতে হবে। তার সমস্যা, ভালো লাগা, খারাপ লাগা, শক্তির জায়গা, ডিসকম্পোর্ট জোন ইত্যাদি নিয়ে আলচনা করতে হবে ও প্রতিটা সিঙেল সমস্যার জন্য তার সাথে আলোচনা করে তার কম্পোর্টের জায়গাটা পরিষ্কার করতে হবে। সে যেহেতু প্রাইভেসির সাথে ওয়ান বাই ওয়ান আলোচনায় নিজের সমস্যা নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী সেহেতু তার সাথে সেভাবে কথা বলে তার সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠতে থাকে সাহায্য করতে হবে। অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে সে যেন তার ভালোলাগার জায়গা থেকে অনিচ্ছায় সরে না যায়। তার সৃজনশীলতা ও কল্পনা শক্তিকে কাজে লাগানো যেতে পারে।

কেমন হবে INFJ দের প্রতি আমাদের আচরণ? চলুন এক নজরে জেনে নিই।

• তাদের মনকে বুঝতে হবে। তারা যেহেতু একা একা নিজের ভেতর বিচরণ করতে পছন্দ করে, সেহেতু তাদের এই ইচ্ছাকে সম্মান দেখাতে হবে। তাদেরকে তাদের মতো একা থাকতে দিতে হবে।
• তারা কোন কিছুর কেন্দ্রে থাকতে অস্বস্তিবোধ করে। সহজে কোথাও মিশতেও তাদের সমস্যা হয়। সেক্ষেত্রে কোন কিছুর জন্য কিংবা কোথাও অংশগ্রহণের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে তাকে কিছু সময় দিতে হবে।
• তার কোন সিদ্ধান্তে দ্বিমত জানানো, কোন আচরণ নিয়ে অভিযোগ, কোন কাজ শোধরানোর অভিযোগ ইত্যাদি বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলার সময় অবশ্যই প্রাইভেসি বজায় রাখতে হবে। ব্যক্তিগতভাবে যথেষ্ট প্রাইভেসি নিয়ে তার সাথে এইসব ব্যপারে কথা বলতে হবে।
• তার সাথে খুব বেশি রাগারাগি, তাকে ধমক দেয়া ইত্যাদি না করার চেষ্টা করতে হবে। তার সাথে এমন কোন আচরণ হয়ে গেলেও সম্ভব হলে তার কাছে দুঃখ প্রকাশ করতে পারেন, সমবেদনা ও সহানুভূতি জানাতে হবে।
• তাদের সাথে শারীরিক ও মানসিকভাবে সংযুক্ত থাকুন। তাদেরকে উপহার দেয়া, ছোট ছোট অনুষ্টানে তাদের প্রতি আলাদা যত্ন নিয়ে তাদের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করা যেতে পারে।
• তাদের অনুভুতি প্রকাশ করার জন্য উৎসাহ দিন। আইডিয়াগুলো প্রকাশ করার জন্য উৎসাহ দিতে হবে। তারা কখনো কখনো ক্রিয়েটিভ উপায়ে তাদের আইডিয়া জানাতে পছন্দ করে। সেটা লিখে হতে পারে কিংবা এঁকে।
• তাদের অনুভূতি ও আইডিয়া শুনে তাদেরকে পরামর্শ দিতে পারেন। কোন কিছু শোধরানোর প্রয়োজন মনে করলে যুক্তি সহকারে তাকে সেটা জানাতে পারেন। তবে খেয়াল রাখতে হবে সেটা যেন ওয়ান বাই ওয়ান হয় ও সেখানে যেন যথেষ্ট প্রাইভেসি থাকে।
• তাদের সাথে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার আয়োজন করতে পারেন নিয়মিত। কাছেও হতে পারে আবার দূরে কোথাও। এক ঘন্টার ডেটও হতে পারে আবার একের অধিক দিনেরও হতে পারে।
• তাদের কোন কথার মাঝে কথা বলবেন না, কোন কাজের মাঝখানে বাধা সৃষ্টি করবেন না বা ইন্টারাপট করবেন না। তাদেরকে তাদের কথা ও কাজ তাদের মতো করে আগে শেষ করতে দিন।

আপনার সন্তানের উজ্জ্বল ভবিষ্যত ও সুন্দর শৈশবের জন্য বিজ্ঞানবাক্সের পক্ষ থেকে শুভকামনা। আপনার যেকোন প্রশ্ন করতে পারেন আমাদের। আমরা চেষ্টা করবো আপনাকে সাহায্য করার।

4 total views, 1 views today

What People Are Saying

Facebook Comment