Show Categories

INTJ প্রোফাইল-যারা নিজেদের চেয়ে একটু বড় থাকে

INTJ প্রোফাইল

পৃথিবীতে সাতশ কোটি মানুষ আছে। সব মানুষের কিন্তু রয়েছে আলাদা আলাদা ধরণ। জানার, শেখার, সিদ্ধান্ত নেয়ার, জীবনবোধের আলাদা আলাদা ধরণ ও শক্তির জায়গা আছে সবার। আছে আলাদা আলাদা পার্সোনালিটি টাইপ । কেউ সবসময় আড্ডা দিতে পছন্দ করে, কেউ নিজের মাঝে থাকতে। কেউ খেলতে পছন্দ করে তো কেউ বই পড়তে, কেউ বা পছন্দ করে লিখতে। কেউ হুট করে সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় তো কেউ সিদ্ধান্ত নেয় ভেবে চিন্তে। এবং এই আলাদা ধরণটা তারা জন্মগতভাবে অনেকটা  প্রকৃতিগতভাবে পেয়ে থাকে। এই আলাদা আলাদা মানুষের আলাদা আলাদা শক্তির জায়গাকে কাজে লাগানোর জন্য আমেরিকান শিক্ষাবিদ ক্যাথেরিন কুকস ব্রিকস ও তার মেয়ে ইসাবেলা ব্রিকস মায়ার পৃথিবীর সব মানুষকে ১৬ টা আলাদা আলাদা ক্যাটাগরিতে ফেললেন একটা পরীক্ষার মাধ্যমে। আর ক্যাটাগরি অনুযায়ী ঠিক করলেন কোন ধরণের মানুষের ভেতর থেকে কীভাবে তার সেরাটা বের করে আনা যাবে! আর তারা দুজন একই কাজটা করলেন বাচ্চাদের জন্য। পরীক্ষার মাধ্যমে বাচ্চাদের পার্সোনালিটি প্রোফাইল বের করে সে প্রোফাইল অনুযায়ী তারা দুজন মিলে বাচ্চাদের মাঝ থেকে সেরাটা বের করে আনার জন্য অনেকগুলো পরামর্শ বা কৌশল বের করেছেন। বের করেছেন, কোন ধরণের বাচ্চার সাথে কীভাবে আচরণ করতে হবে তাও। এক কথায় বলতে গেলে, শেখার বা সফল করার একটা ন্যাচারাল উপায় তিনি বাতলে দিয়েছেন। লিখেছেন একটি বইও। এই মহান শিক্ষাবিদের সেই বই অবলম্বনে আমরা বিজ্ঞানবাক্স ব্লগের পাঠকদের জন্য একটা সিরিজ লেখা শুরু করেছি। আগের ব্লগের মাধ্যমে আপনি আপনার সন্তানের পার্সোনালিটি টাইপ বের করতে পারবেন। আর আমরা ধাপে ধাপে সব পার্সোনালিটির বাচ্চাদের জন্য আপনাকে পরামর্শ দিবো ও জানাবো আপনার বাচ্চার সেরাটা বের করে আনার জন্য আপনার ভূমিকা কেমন হতে হবে। আপনার বাচ্চার পার্সোনালিটি প্রোফাইল জানা না থাকলে জেনে নিন আমাদের এই টেবিলটা দেখে। আর আজকে জেনে নিন  INTJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের জন্য পরামর্শ।

INTJ প্রোফাইল

নিজের ভেতরের কোন সমস্যা, মন খারাপ কিংবা মেজাজ খারাপ, এমন পরিস্থিতিতে নিজেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে যে, সেই INTJ। তারা অনেক ব্যাক্তিস্বতন্ত্র হয়। নিজের চিন্তা ও নিজের ভেতরের চিন্তা, অনন্যতা ও আইডিয়া দিয়ে নিজেকে বিচার করে। সে তীব্রভাবে ব্যাক্তিগত, নিজের অনুভূতিকে সরাসরি প্রকাশ করতে চায় না বলে তাকে বা তার মনোভাব বোঝা কিছুটা কঠিন বাবা-মায়ের জন্য। কিন্তু কঠিন হলেও অভিভাবককে তাদের INTJ সন্তানকে পড়তে ও বুঝতে হবে।

প্রি-স্কুলার INTJ প্রোফাইল (বয়স ০-৪ বছর)

জন্মের সাথে সাথেই একই সাথে স্বতন্ত্র, বুদ্ধিমান ও পর্যবেক্ষক মানুষদের তালিকায় আপনার INTJ সন্তান লিপিবদ্ধ হয়েছে। INTJ রা জীবনের বেশিরভাগ সময়েই দূর থেকে পর্যবেক্ষণ করে যায় তার চারপাশকে। সে নিজের ভেতরে থাকে। বাইরের কারো সাথে খুব একটা মিশে না। মজার বিষয় হচ্ছে, আপনার সন্তান INTJ হলে আপনি জন্মের কয়েকদিনের মাঝে টের পাবেন। দেখবেন, অন্যান্য বাচ্চাদের মতো সে হাসবে না, আপনার খুনসুটির সাথে নিজেকে জড়াবে না, কখনো কখনো মা বা বাবার কোলও তার পছন্দের দখল নিতে পারবে না। নতুন বাবা-মার জন্য এমন পরিস্থিতি কিছুটা হতাশার। প্রথম সন্তান নিয়ে সব বাবা-মারই অনেক বেশি আহ্লাদ থাকে, প্যান্টাসি থাকে। তারা সবসময় সন্তানকে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে রাখতে চাইবে। কিন্তু একজন INTJ-তার বাবা-মাকে এমন আকাঙ্খা থেকে বঞ্চিতও করতে পারে।

সে একা একা খেলতেই বেশি পছন্দ করে। অন্য বাচ্চাদের সাথে মিশতে সে অনেক অস্বস্তিবোধ করে। সে কোন খেলা বা কোন গ্রুপে যুক্ত হওয়ার আগে বাইরে থেকে ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করবে। যতক্ষণ না পর্যন্ত সে সঠিক তথ্য, সম্পূর্ণ নিয়ম ও নিজেকে সেখানে যুক্ত করার কোন কারণ খুঁজে পাবে না ততক্ষণ পর্যন্ত নিজেকে পর্যবেক্ষক হিসেবে রাখবে। এরপর সন্তুষ্ট হওয়ার মতো তথ্য পেলে সেখানে যুক্ত হবে।

একজন INTJ তার চেয়ে একটু বড় হয়। মানে, সে বয়সের তুলনায় কিছুটা আগানো থাকে। সে অনেক দ্রুত শেখে। সময়ের তুলনায় অনেক আগেই তার শব্দভান্ডার অনেক সমৃদ্ধ হয়। সে ভাষাজ্ঞান ও বাক্য গঠণের দক্ষতায় দু-বছর বয়স থেকেই আপনাকে মুগ্ধ করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। নতুন মানুষের সাথে মেশার চেয়ে নতুন অভিজ্ঞতার সাথে নিজেকে পরিচয় কারানো তার কাছে বেশি ভালো লাগার! সে নতুন নতুন খেলনা নিয়ে খেলতে পছন্দ করে, নতুন কিছু বানাতে পছন্দ করে ও আর্টের প্রতি তার কিছুটা ঝোঁক থাকে। প্রবল কল্পনাশক্তি, চারপাশকে নিজের মত করে দেখার প্রবণতা, উন্নত চিন্তার কারণে সে নিজেকে অন্যদের চেয়ে কিছুটা আলাদা ভাবে উপস্থাপন করতে পারে। একই কারণে সে নিজে নিজে অনেক কিছু সমাধান ও উত্তর খুঁজে নিতে পারে।

সে বই পড়তে ভালোবাসে। দ্রুত পড়াও শিখে যায়। অনেক বেশি বই পড়ার ও জানার অভ্যাসের কারণেই সে তার চারপাশ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চায়। তার কৌতূহল নিয়ে প্রচুর প্রশ্ন করে। একই সাথে সে তার প্রশ্ন বা কৌতূহলের পূর্নাঙ্গ তথ্য ও পূর্নাঙ্গ সমাধান চায়। তার প্রশ্নের গা-সারা উত্তর বা কোন রকম উত্তরে সে সন্তুষ্ট হয় না। তারা জাদুঘরে যেতে পছন্দ করে। বিশেষ করে বিজ্ঞান জাদুঘরগুলোতে ঘোরা তারা উপভোগ করে। তার চারপাশে কী হচ্ছে? কেন হচ্ছে? এইসবের বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা জানার জন্য তার ভেতর প্রবল আগ্রহ থাকে। এবং সে তার আগ্রহের জায়গা ও আগ্রহের বিষয় সম্পর্কে কথা বলার সুযোগ পেলে অনেক খুশিও হয়।

INTJ বাচ্চারা সমবয়সী দের সাথে মেশার চেয়ে তারচেয়ে বড়দের সাথে মিশতে বেশি পছন্দ করে। সে বড়দের সাথে আলোচনা করতে, কোন বিষয়ে বড়দের যুক্তি নিয়ে ভাবতে ও বড়দের সিদ্ধান্ত নেয়ার ধরণের সাথে নিজেকে মেলাতে পছন্দ করে। সাধারণত তার আশেপাশের কারোর ইমোশন বা খারাপ লাগা তাকে খুব একটা স্পর্শ করতে পারে না। একটা বাচ্চা কেন কাঁদছে সেটা তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ না। বরং সে কান্নার কারণ জেনে বাচ্চাটার জায়গায় তাকে বসিয়ে দেখতে চাইবে সে এমন পরিস্থিতিতে কী করতো! কিন্তু সে নিজের আবেগ ও অনুভূতিকে ব্যক্তিগত রাখতেই পছন্দ করে। খুব একটা প্রকাশ করতে চায় না, সহজে কাঁদে না, কিংবা আপসেটও হয় না!

INTJ রা সবসময় নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে যায়। আরো সহজ করে বললে, সে নিজের সাথেই প্রতিযোগিতা করে। সে খুব ভালো করেই জানে সে কী পারবে, কী পারবে না, সে কিসে সন্তুষ্ট হয়, কিসে বিরক্ত হয়। মোদ্দাকথা, নিজের ব্যাপারে নিজের একটা স্পষ্ট ধারণা থাকে তার। সে কোন প্রজেক্ট শুরু করে দেয়ার পরে সেখানে অন্য কারো দেয়া নতুন কোন আইডিয়া ও পরামর্শ নিতে চায় না। এবং কেউ যদি তাকে জোর করে পরামর্শ দিতে চায়, বা তার কাজ সম্পর্কে কোন নেতিবাচক মন্তব্য করে তাহলে সে খুবই বিরক্ত হয় ও সচেতনভাবে ওইসব এড়িয়ে যায়।
INTJ রা রুটিনের মধ্যে থাকতে ও সবকিছু রুটিন মত করতে অভ্যস্ত হয়। সে কোন কাজ করার আগে সেই কাজের ভবিষ্যত বা করণীয় সম্পর্কে আগেই বিস্তারিত জেনে কাজের একটা পরিকল্পনা করে ফেলে। সে নিজের খেলনা, জামা কাপড় ও নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সুন্দর করে গুছিয়ে রাখে।

অনেক সময় চারপাশের মানুষের সাথে INTJ প্রোফাইল এর বাচ্চাদের আচরণের কারণে বাবা-মাকে কিছুটা অপ্রস্তুত পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। কারণ কারো সাথে কথা বলতে কিংবা কোন কাজের প্রতি কিংবা নতুন কোন অভিজ্ঞতার প্রতিও তার আগ্রহ না থাকলে সে সেখান দ্রুত সরে আসে। কখনো কখনো অনেক রুঢ় আচরণ করে সে। এক্ষেত্রে তার অপছন্দের বিষয়গুলো প্রকাশ পেলে তাকে তার মত সিদ্ধন্ত নিতে দেয়া উচিত। কারণ জোর করে কিংবা তার উপর বল প্রয়োগ করে তাকে তার অবস্থান থেকে সরানো যাবে না। সে নিজের অবস্থানে অনেক শক্ত থাকে ও কেউ বল প্রয়োগ করলে সে খুবই রুঢ় আচরণ করে বসে।

সে নিজের আবেগ অনুভূতি সাধারণত কারো সাথে শেয়ার করে না। ব্যাক্তিগতভাবে রাখতে পছন্দ করে। এমন পরিস্থিতিতে সে সবার আগে নিজের ভেতরে প্রবেশ করে। নিজে নিজেই সমাধান খোঁজার চেষ্টা করে। এইসময়ে বাবা-মার উচিত তাকে যথেষ্ট প্রাইভেসি দেয়া। তাকে তার মত করে ভাবতে দেয়া। সে যদি নিজে থেকে কখনো শেয়ার করতে চায় তাহলে তা মনোযোগ দিয়ে শোনা। তবে আগ বাড়িয়ে কোন সমাধান বা উপদেশ না দেয়াই উত্তম। যদি সে কোন উপদেশ চায় তাহলেই কেবল তাকে পরামর্শ দিতে পারেন। তবে সমস্যা খুবই জটিল মনে হলে তাকে কিছু সাজেস্ট করা যেতে পারে।

স্কুল গোয়িং INTJ প্রোফাইল (বয়স ৫-১০ বছর)

স্কুল গোয়িং INTJ ধীরে ধীরে নিজের আইডিয়া, স্কিল, শৈল্পিক সত্তা ইত্যাদি সুন্দরভাবে তুলে ধরার মত একটা গুণ অর্জন করে। আর্ট, সৃজনশীল লেখালেখির পাশাপাশি বিজ্ঞানের প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করার প্রতি তার অনেক আগ্রহ থাকে। যেসবই প্রজেক্টে নিজের মত করে কাজ করা যায়, নিজের উদ্ভাবনী শক্তি কাজে লাগানো যায় সেসব প্রজেক্টে কাজ করার প্রতি তার প্রচুর আগ্রহ থাকে। সে একই সাথে নতুন তথ্য ও নতুন কিছু জানার উন্মুখ হয়ে থাকে। INTJ রা সবসময় নিজের সাথে প্রতিযোগিতা করে। নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে চায়। নিজের আইডিয়াগুলোর সাথে সময় কাটাতে, সেগুলোকে আরো সুন্দর করতে নিজের আলাদা পৃথিবীতেই কাজ করে সে। বাইরের কেউ তার কোন প্রশংসা করলো কী না, তার কাজ বাইরের কারোর কাছে খারাপ লাগলো কী না, এইসব নিয়ে সে খুব একটা চিন্তিত থাকে না। তার কাছে সে কী করছে, কী করতে চায় সেটা গুরুত্বপূর্ণ,বাইরের পৃথিবী না!

তারা সাধারণত একা খেলতে পছন্দ করে। কখনো কখনো কোন বিশেষ বন্ধুর সাথে সময় কাটাতেও ভালো লাগে তাদের। তবে এরা স্কাউট, বিএনসিসি টাইপ সাংগঠনিক গ্রুপগুলোর সাথে কাজ করতে চায়। কারণ সেখানে নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে কাজ করা যায়। সৃজনশীলতা সম্পর্কে আরো ভালো করে জানা যায়। কিন্তু কোন কিছু সম্পর্কে বিস্তারিত না জেনে কোথায়ও জয়েন করতে বা নিজের জানা নিয়ে নিজে সন্তুষ্ট না হলে কোন কিছুর কেন্দ্রে থাকতে অস্বস্তিবোধ করে। অনেকটা উপহারের মতোই তারা গল্প বলার ও সৃজনশীল লেখালেখি করার গুণ পেয়ে থাকে। সায়েন্স ফিকশন পড়তে তারা অনেক ভালোবাসে।

সে বৈশ্বিক হালছাল সম্পর্কেও জানার জন্য আগ্রহী হয়। তাছাড়া অনেক অনেক বড় বড় ইস্যূ সম্পর্কে সে জানতে চায় ও সচেতন থাকে। জন্ম, মৃত্যু, ধর্ম, সৃষ্টিকর্তা, বৈশ্বিক অসামঞ্জস্যতা এমন অনেক গভীর ও বড় বড় বিষয় সম্পর্কে জ্ঞান আহরণ করা তার নেশার মতো। অনেক তথ্য সমৃদ্ধ থাকার ফলে সে বেশ ভালো বিতার্কিক হতে পারে। কখনো কখনো জানার পরিধি ও যুক্তির পরিধি বড়দেরকেও অবাক করে দিতে পারে।
স্কুল গোয়িং INTJ মনে করে সে নিজের দায়িত্ব নিজে নেয়ার মতো ও নিজের ব্যাপারে নিজে সিদ্ধান্ত নেয়ার মতো যথেষ্ট বড় হয়েছে। কিন্তু বাইরে থেকে দেখলে তা মনে নাও হতে পারে। তার এই মানসিকতার কারণে সে দায়িত্ব নিতে চাইবে, নিজের ব্যাপারে প্রাইভেসি চাইবে, স্বাধীনতা চাইবে ও একই সাথে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার অধিকার চাইবে। এইসব অধিকার সে না পেলে, সাধারণত অনেক INTJ নিজেরা একটা বিকল্প পথ তৈরি করে নেয়। আর যারা করে না তারা অনেক বেশি আপসেট হয়ে পড়ে। তাদেরকে তাদের চাওয়া মত স্বাধীনতা দিতে পারেন। তবে দেয়ার আগে তাকে গ্রহণযোগ্যতা ও অগ্রহণযোগ্যতা সম্পর্কে ধারণা দিতে পারেন। আমাদের সামাজিক প্রয়োজনীয়তা, সামাজিক বাধ্যবাধকতা ও ভালো –খারাপ সম্পর্কে একটা স্বচ্ছ ধারনা দিতে পারেন।

INTJ রা নিজেদের মতো করে চিন্তা করতে ভালোবাসে। সে নিজেদের চিন্তা ও ভাবনায় প্রচুর সময় কাটায়। তাদের স্বতস্ফুর্ত ও মানসিকভাবে শক্তিশালী থাকতে হলে নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় একা থাকা আবশ্যক। তাদেরকে তাদের মত করে একা সময় কাটানোর সুযোগ দিন। আর তাদের নিজেদের আইডিয়া নিয়ে কাজ করার কারণে অনেক সময় তাদের আইডিয়া গুলো অনেক উদ্ভট মনে হবে। কিন্তু তারা তাদের এই উদ্ভট আইডিয়ার উপরেই অবিচল থাকতে চাইবে। তাদের ইনোভেটিভ আইডিয়া কেন কাজ করবে না এই নিয়ে তাদের আলাদা ভাবনা থাকে। এবং দিনশেষে তারা তাদের আইডিয়াকে সঠিক প্রমাণ করার জন্য বা একই আইডিয়া নিয়ে কাজ করার পক্ষেই অবস্থান করে। ঠিক এই সময়টাতে সে আশেপাশের পরিবেশ দ্বারা হেয় হতে পারে। এই সময়ে তাকে সাহস যোগানোর জন্য, তার পাশে থাকা আবশ্যক। এই সময়টাতে তাকে আপনার স্বার্থহীন ভালোবাসা প্রকাশ করুন।

টিনএজ INTJ প্রোফাইল (বয়স ১০-১৬ বছর)

টিনএজার INTJ প্রোফাইল এই সময়ে বাইরের পৃথিবী থেকে আলাদা থাকার চিন্তা থেকে কিছুটা বের হয়ে আসে। এই সময়ে নিজেই নিজেকে এক প্রকার চাপ প্রয়োগ করে বাইরের পৃথিবী, আশেপাশের মানুষ, স্কুলের অন্যান্য বন্ধু, স্কুলের বিভিন্ন অনুষ্ঠান, সংগঠন ইত্যাদির সাথে মেশার জন্য। এবং সে মিশতেও পারে। এই সময়ে ইন্ডিভিজুয়াল স্পোর্টসের প্রতি তার আগ্রহ তৈরি হয়। যেমন-সাঁতার, টেনিস, ব্যাটমিন্টন ইত্যাদি যে সব খেলায় নিজের স্কিল দেখানোর সুযোগ থাকে সেগুলোর প্রতি সে বেশ আগ্রহী হয়ে পড়ে। কিন্তু তার অনুভূতি, আবেগ কিংবা ব্যাক্তিগত বিষয় সে কারো সাথে খুব একটা শেয়ার করতে চায় না। এমন কী পরিবারের কারো সাথেও না। এমন কী তার একান্ত ব্যক্তিগত কোন বিষয় পরিবারের কেউ জানতে চাইলেও সে সেটা ভালোভাবে নেয় না। বরং বেশ শক্ত প্রতিক্রিয়া দেখায়।

টিনএজ INTJ একাডেমিক পড়ালেখার প্রতি বেশ সিরিয়াস হয় এই সময়ে। আর যদি নিজের মত করে ভাবার ও নিজের মত থাকার স্বাধীনতা পায় তাহলে সে আরো বেশি মোটিভেট হয়। সবচেয়ে সেরা ছাত্রকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মানসিকতাও তার মাঝে তৈরি হয়। তবে তারা কোন শিক্ষক কিংবা কোন কোর্সের কারণে বিরক্ত হলে বা ডিমোটিভেটেড হলে সে সেই শিক্ষক ও সেই কোর্স থেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। তারা সবসময় ন্যায়সম্মত থাকতে চায়। বিচার বিশ্লেষণ ক্ষমতা তাদের সুষ্ঠু হয়ে থাকে। নিজের বিশ্বাসের জায়গার সাথে অন্য কোনকিছু নিয়ে কম্প্রোমাইজ করে না। তার যুক্তি, জানার পরিসর ও চিন্তার গভীরতা বেশ ভালো থাকে। সে বিতর্ক করতে ভালোবাসে। নিজের যুক্তি তুলে ধরতে ভালোবাসে।

জীবনযাপনের ক্ষেত্রে অন্যদের চেয়ে কিছুটা আলাদা থাকে INTJ প্রোফাইল এর টিনএজাররা। আমেরিকান INTJ প্রোফাইল এর টিনএজারদের মাঝে ট্যাটো করা, সারারাত বাইরে কাটিয়ে দেয়া, টুকটাক মদপান করা, সোজা কথায় এক্সট্রিম ফ্যাশন সেন্স ও লাইফ স্টাইল লক্ষ্য করা যায়। আমাদের ভাষায় চলাফেরায় কিছুটা বখাটেপনা লক্ষ করা যায়। আমাদের দেশের INTJ দের মাঝে সেই হিসেবে চুল কালার করা, অন্যান্যদের চেয়ে আলাদা পোশাক আশাক পছন্দ করা ইত্যাদি লক্ষ্য করা যাবে।

INTJ রা নিজেদের সময়ের চেয়ে একটু আগানো থাকে ও নতুন যে কোন অভিজ্ঞতা নিতে উন্মুখ হয়ে থাকে । এই বিষয়টি একজন টিনএজ INTJ এর বাবা-মায়ের জন্য চিন্তার কারণ হতে পারে। কারণ অনেক INTJ প্রোফাইল এর টিনএজাররা খুব তাড়াতাড়ি সেক্সুয়াল অভিজ্ঞতা ও অনেকেই ড্রাগের সাথে জড়িয়ে পড়ে। সঠিকভাবে তাদের গাইড করতে না পারলে অনেকে আসক্ত হয়ে যায়। এই সময়ে বাবা-মায়ের উচিত একটু আগে থেকে তার INTJ সন্তানকে স্বচ্ছ সেক্সুয়াল এডুকেশন দেয়া, খোলামেলা ভাবে এইসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা। ড্রাগ আসক্তির ভয়াবহতা ও এর ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে আগে থেকে স্বচ্ছ ধারণা দেয়া উচিত।

কেমন হবে INTJ প্রোফাইল এর সন্তানের প্রতি আমাদের আচরণ? দেখে নেয়া যাক এক নজরে!

• তার মত করে তাকে একা খেলতে দিন। সে যদি কেবল বিশেষ কারো সাথে খেলতে চায় সে সুযোগও তাকে দিন।
• তাদেরকে জোর করে কোথায় যুক্ত করতে চাইবেন না। তাদের ইচ্ছার অপেক্ষা করুন। তাকে প্রস্তুত হওয়ার সুযোগ দিন।
• তাকে সময়ের চেয়ে আগানো অভিজ্ঞতার তথ্য জানান। নিজের সময়ের চেয়ে এগিয়ে থাকাটা তার প্রাকৃতিক গুণ। তথ্য পেলে সে ওই অভিজ্ঞতা নিতে চাইবে।
• বিজ্ঞান মেলা, বিজ্ঞান জাদুঘর, বিভিন্ন বিজ্ঞান ক্যাম্পেইন ইত্যাদিতে তাকে অংশগ্রহণ করার সুযোগ করে দিন।
• আর্ট করার উপকরণ সরবরাহ করতে পারেন তার জন্য। ভালো মানের আর্ট পেপার, রং, জল রং, পেন্সিল ও নানান ধরণের আর্ট। একটু বড় হলে তাকে পর্যাপ্ত প্রাইভেসি ও প্রাইভেট প্লেস দিন তার সৃজনশীলতা প্রকাশের জন্য।
• তাদের কৌতূহল ও প্রশ্ন অস্বস্তিকর, বিরক্তিকর ও অদ্ভূত হলেও তাকে তার কৌতূহল ও প্রশ্ন করার অভ্যাসের জন্য উৎসাহি করুন।
• কখনো কখনো তারা একা থাকতে চাইলে তাকে একা থাকতে দিন। অনেক সময় দেখা যায় স্কুল থেকে এসে কিংবা কোন কাজ থেকে এসে হুট করে নিজের রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দিয়েছে কিংবা একা থাকতে চাচ্ছে। এই সময়টাতে তাকে বিরক্ত করবেন না। কিছু জানার থাকলে অপেক্ষা করুন। সে স্বাভাবিক হলে জানতে চান।
• তাদের গভীর ও বিশ্লেষণধর্মী চিন্তার জন্য তাকে উৎসাহিত করুন। ব্যাক্তিগতভাবে হেয় করবেন না।
• তার সাথে কোন আচরণ, নিয়ম কিংবা তার সাথে সম্পর্কিত যে কোন কিছুর জন্য ন্যায়সম্মত থাকুন।
• তাদের সিদ্ধান্ত নেয়ার ইচ্ছা ও তার চিন্তাকে নিজের মতো করে ভাঙ্গাগড়ার ইচ্ছাকে সম্মান করুন।
• তাদের কথা ও চিন্তা পূর্নাঙ্গ মনোযোগ দিয়ে শুনুন। তাদের যে সব ব্যাক্তিগত বিষয় তারা জানাতে চায় না তা নিয়ে জানতে চাইবেন না।
• তাদের হতাশা, স্ট্রেস দূর করার জন্য নিজেদের মতো করে থাকতে দিন। তারা যদি বাইরে কোথাও যেতে চায় তাহলে সেক্ষেত্রেও তা মেনে নিন।
• টিনএজ সময়ের আগে বা শুরুতে তাদেরকে সেক্সুয়াল এডুকেশন ও ড্রাগ সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা দিন।

আপনার সন্তানের শৈশব, কৈশোর ও ভবিষ্যত সুন্দর ও সাফল্যমণ্ডিত হোক।

আপনার সন্তানকে সৃজনশীল করে তুলতে ও তার সঠিক মেধা বিকাশের জন্য তাকে বিজ্ঞানবাক্স দিন। বিজ্ঞানবাক্স অর্ডার করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

441 total views, 1 views today

What People Are Saying

Facebook Comment