জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বর্ষা দীর্ঘায়িত হয়েছে। ফলে, বর্ষাকালীন সময়ে যে অসুখগুলো বেশি হয়, যেমন- ফাংগাল ইনফেকশন, ডেঙ্গু, টাইফয়েড, ডায়রিয়া, ভাইরাল জ্বর- এগুলো পিছু ছাড়ছে না বাচ্চাদের। এগুলো থেকে সুরক্ষার জন্য কিছু সতর্কতা এবং সচেতনতা প্রয়োজন। যেমন-

১। শিশুকে পরিচ্ছন্ন রাখুন:

ফাংগাল ইনফেকশন সহ নানান ধরনের ইনফেকশন মূলত জীবাণুঘটিত। শরীর অপরিষ্কার থাকলে আর্দ্র পরিবেশে এরকম ইনফেকশন হয়। তাই বাচ্চাদের সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। প্রতিদিন গোসল জরুরি। প্রয়োজনে পানির সঙ্গে মাইল্ড এন্টিসেপটিক ইউজ করা যেতে পারে। এই সময় বাচ্চাদের বেশি ঘাম হয় বলে কিছুক্ষণ পর পর ঘাম মুছে দিতে হবে ও জামা পাল্টে দিতে হবে।

২। সঠিক কাপড় পরাতে হবে:

এই সময়ে রোদ থাকলে খুব গরম থাকে এবং একটু বৃষ্টি পড়লেই ঠান্ডা অনুভূত হয়। গরমের সময় বাচ্চাদের অবশ্যই ঢিলেঢালা পাতলা সুতি কাপড়ের জামা পরাতে হবে, আবার ঠান্ডা পড়লে আরামদায়ক উষ্ণ কাপড় পরাতে হবে, যাতে ঠান্ডা না লেগে যায়।

৩। স্বাস্থ্যকর খাবার এবং বিশুদ্ধ পানি দিতে হবে:

এই সময়ে খাদ্য এবং পানিবাহিত রোগগুলো খুব দ্রুত ছড়ায়। আবার বেশি স্পাইসি খাবারে পেটে গোলমাল দেখা দেয়। তাই বাচ্চার বিশুদ্ধ পানি পান নিশ্চিত করা আবশ্যক, সেই সাথে খেয়াল রাখতে হবে বাইরের খাবার যাতে কিছুতেই না খায়। ফরমুলা দুধ কিংবা সাপ্লিমেন্ট দিচ্ছেন, এসব ক্ষেত্রে সব সময় ফুটানো পানি ব্যবহার করবেন। খাবার যেন ঢাকা থাকে সেদিকে কঠোর নজর রাখতে হবে।

৪। চারপাশ পরিষ্কার রাখুন এবং মশা থেকে দূরে রাখুন:

এই সময় মশার প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। তাই বাসস্থানও খুব পরিষ্কার রাখতে হবে। কোথাও যেন পানি জমে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। শিশুকে মশা থেকে দূরে রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে। সেজন্য, কয়েল, স্প্রে বা মস্কুইটো রেপেলেন্ট ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে, ধোঁয়ায় কারো কারো এলার্জি থাকে, সে ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে হবে। সবচে’ ভালো হয় মশারি ব্যবহার করলে।

৫।কমন ওষুধগুলো সংগ্রহে রাখুন সব সময়: 

সর্দি, কাশি, জ্বর-জারির প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে ব্যবহারের জন্য কিছু কমন অষুধ থাকে, এগুলো বাসায় সংগ্রহে রাখতে পারেন সব সময়। তবে ডাক্তারের পরামর্শ ব্যতীত এন্টিবায়োটিকের মতো কোন তীব্র ওষুধ খাওয়াতে যাবেন না কখনো।

বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র সায়েন্স কিট অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স আপনার সন্তানের অবসর সময় সুন্দর করবে, এবং তার মেধা বিকাশে সাহায্য করবে। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

281 total views, 1 views today

What People Are Saying

Facebook Comment